Share on facebook
Facebook
Share on email
Email
Share on whatsapp
WhatsApp

হে বোন! জান্নাত তোমার প্রতীক্ষায়

৳ 340 ৳ 170

এ কেবল একজন হাজেরা নন, ইতিহাসের পাতায় এমন বহু হাজেরা রয়েছেন যারা তাদের রবের সন্তুষ্টির জন্য দুনিয়ার সকল সুখ-ভোগ ত্যাগ করে কষ্টের জীবনকে সাদরে গ্রহণ করেছেন। দীনের জন্য নিজের সর্বস্ব উজাড় করে তারা রাব্বুল আলামিনের সন্তুষ্টি অর্জন করেছেন।

🚛 ৬৩টি জেলা সদরে আছে ক্যাশ অন ডেলিভারি সার্ভিস

💝 ৳৩৯৯+ টাকার অর্ডারে কলম গিফট থাকছে !

💝 ৳৯৯৯+ অর্ডারে কলম গিফট + ডেলিভারি ৳১০ মাত্র (ওয়েবে)

Additional information

লেখকঃ

ড. মুহাম্মদ ইবনে আবদুর রহমান আরিফী

অনুবাদকঃ

মুফতী মুআজ আহমাদ

প্রকাশনীঃ

আর রিহাব পাবলিকেশন

পৃষ্ঠা সংখ্যাঃ

200

ধরনঃ

হার্ডকভার

বিশ্বাস করুন, এই দুনিয়ার বুকে আপনার মর্যাদাই সবার ঊর্ধ্বে। আপনি একজন মা, বোন, স্ত্রী ও কন্যা। আপনি এই সমাজের অর্ধেক। অবশিষ্ট অর্ধেকের অস্তিত্বের উৎসও আপনি। যুগে যুগে আপনার গর্ভেই জন্মেছেন দ্বিগি¦জয়ী বীর, অনলবর্ষী বক্তা, যুগের রাহবার, দেশ ও জাতির কা-ারী। আপনার কাছেই আমি কিছু কথা ও আবেদন, ব্যথ্যা ও নিবেদন, ইতিহাসের কিছু বাস্তব সত্য ঘটনা তুলে ধরতে চাই। হয়ত তা আপনার হৃদয়কে স্পর্শ করবে। আপনার আবেগ ও অনুভূতিকে ছুঁয়ে যাবে।
আমরা জানি, নারী পুরুষের অর্ধাংশ ও সমকক্ষ। যুগে যুগে পুরুষের মাঝে যেমন আলেম ও বিদ্যান, সমাজ সংস্কারক ও দীনের মহান দায়ীগণ ছিলেন, নারীদের মাঝেও তেমনি বিদ্যান ও দায়ী ছিলেন। পুরুষের মাঝে যেমন দিবসের রোযাদার ও রাতের রোদনকারীরা ছিলেন, নারীদের মাঝেও তেমন ছিলেন, বরং কল্যাণ ও সত্যের প্রতিযোগিতায় নারীরা সব সময়ই পুরুষদের পাশাপাশি ছিলেন। এভাবে কত নারী যে পুরুষদেরকে ছাড়িয়ে গেছেন! তাদের তুলনা তো তারাই! আল্লাহর গোলামী, দীনের নুসরত ও হেফাজত, বদান্যতা ও আমলে-কর্মে নারীরা সর্বদাই পুরুষের সমকক্ষ ছিলেন, বরং আপনি যদি ইতিহাসের পাতায় চোখ বুলান তাহলে দেখতে পাবেন, মানবেতিহাসের বৃহৎ ও মহান বহু কাজ নারীরাই আঞ্জাম দিয়েছেন।সর্বপ্রথম যিনি হারাম শরীফে বসবাস করেছেন, যমযমের পানি পান করেছেন, সাফা-মারওয়ায় সায়ী করেছেন তিনি একজন নারী। তিনি হযরত ইবরাহীম আ.এর স্ত্রী ও ইসমাইল আ.এর জননী হযরত হাজেরা রা.। সর্বপ্রথম যিনি ইসলাম গ্রহণ করেছিলেন এবং দীনের সাহায্যার্থে নিজের সর্বস্বকে উজাড় করে দিয়েছিলেন তিনি একজন নারী। তিনি হলেন উম্মুল মুমিনীন হযরত খাদীজা রা.। ইসলামের জন্য যিনি নিজের জীবন কুরবান করে প্রথম শহীদের মর্যাদা লাভ করেছিলেন তিনিও একজন নারী। তিনি হলেন হযরত আম্মার বিন ইয়াসিরের জননী হযরত সুমাইয়া রাযি.।মনে রাখবেন! মর্যাদা কোনো মানুষের দান বা অনুকম্পা নয়। পুরুষ বা নারী হওয়া মর্যাদার মাপকাঠি নয়। কর্ম ও অবদানই ব্যক্তির মর্যাদার উৎস। তাই এ যুগেও যদি মর্যাদা লাভ করতে হয় তাহলে কর্মের ময়দানে আপনাকে আপন প্রতিভার স্বাক্ষর রাখতে হবে।মা হাজেরার ধৈর্য ও কুরবানীর ইতিহাস কে না জানি! ক্ষুধা-তৃষ্ণায় কষ্ট করেছেন। বিজন মরুভূমিতে একাকী কোলের সন্তান নিয়ে জীবনযাপন করেছেন। তবু আল্লাহ তাআলার প্রতি সব সময় সন্তুষ্ট থেকেছেন। সমস্ত কষ্টক্লেশ হাসিমুখে বরণ করেছেন। আল্লাহ তাআলার সন্তষ্টির জন্য তাঁর পথে মোজাহাদার বিস্ময়কর ইতিহাস রচনা করেছেন। এ সব কাজের সওয়াব ও বিনিময় আল্লাহ তাআলার কাছে কী বিপুল হবে তা কী ভাবা যায়! তাঁর ব্যাপারে আল্লাহ তাআলা পবিত্র কুরআনের আয়াত নাযিল করেছেন। তাঁর সন্তানকে নবী বানিয়েছেন। তাঁকে সকল অলীদের জন্য আদর্শ সাব্যস্ত করেছেন। এসব অসামান্য প্রাপ্তির পরিবর্তে দুনিয়ার সামান্য কষ্টের কি কোনো তুলনা হয়!এ কেবল একজন হাজেরা নন, ইতিহাসের পাতায় এমন বহু হাজেরা রয়েছেন যারা তাদের রবের সন্তুষ্টির জন্য দুনিয়ার সকল সুখ-ভোগ ত্যাগ করে কষ্টের জীবনকে সাদরে গ্রহণ করেছেন। দীনের জন্য নিজের সর্বস্ব উজাড় করে তারা রাব্বুল আলামিনের সন্তুষ্টি অর্জন করেছেন।

সহজ রিটার্ন পলিসি

ডেলিভারি নেবার সময়

বিশুদ্ধ ইসলামী গ্রন্থ

মানসম্মত লেখক এবং প্রকাশক

সহজ পেমেন্ট সিস্টেম

বিকাশ/রকেট / ক্যাশ অন ডেলিভারি